খনিজ সম্পদ: ধাতু-অধাতু

From Wikiversity
      প্রধান পাতা · সম্প্রদায়ের প্রবেশদ্বার · মিলনায়তন · সাহায্য      
মাধ্যমিক স্তর

এই কোর্সটিকে মাধ্যমিক বা এর উচ্চ স্তরের শিক্ষার্থীদের জন্য সুপারিশ করা হয়েছে।

    

আমাদের প্রয়োজনীয় বিভিন্ন ধাতু,অধাতু,উপধাতু বা তাদের বিভিন্ন যৌগ প্রকৃতিতে মাটি,পানি কিংবা বায়ুমণ্ডল থেকে সংগ্রহ করা হয়। মাটি,পানি বা বায়ুমণ্ডলের যে অংশ থেকে এগুলোকে সংগ্রহ করা হয় তাকে খনিজ বলে। খনিজ কঠিন হতে পারে, যেমন:লোহা বা তামার খনিজ,তরল হতে পারে, যেমন: পেট্রোলিয়াম বা খনিজ তেলের খনিজ আবার গ্যাসীয় হতে পারে, যেমন: প্রাকৃতিক গ্যাসের খনিজ। পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে প্রচুর পরিমাণে প্রাকৃতিক গ্যাস পাওয়া যায় যা রান্নার কাজে, যানবাহনে জ্বালানি হিসেবে, বিদ্যুৎ উৎপাদনে বা বিভিন্ন শিল্পকারখানায় কাঁচামাল হিসেবে ব্যবহার করা হয়। মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে পেট্রোলিয়ামের খনিজ রয়েছে, যা তারা সারা পৃথিবীতে রপ্তানি করছে এবং সমস্ত পৃথিবীর খনিজ তেলের চাহিদা পূরণ করছে। দক্ষিণ আফ্রিকাতে রয়েছে সোনা ও হীরার খনি। এছাড়া বিভিন্ন দেশে বিভিন্ন ধরনের খনিজ পাওয়া যায়, যা দেশ তথা সমগ্র পৃথিবীর উন্নয়নের মূখ্য ভূমিকা পালন করছে। তাই কঠিন,তরল বা গ্যাসীয় খনিজ গুলোকে একত্রে খনিজ সম্পদ বলা হয়।